বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স (driving license) না থাকলে আপনি গাড়ি বা মোটরসাইকেল চালাতে পারবেন না। বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (BRTA) ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করে থাকে। কিভাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স (driving license) পাওয়ার যোগ্যতাঃ

  • পেশাদারি ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য ২০ বছর এবং অপেশাদারি ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য নূন্যতম ১৮ বছর বয়স হতে হবে।
  • কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণী পাস হতে হবে।
  • বধির, রাতকানা, বর্ণান্ধ, হৃদরোগ থাকা যাবে না।
  • এমন কোন শারীরিক সমস্যা থাকা যাবে না, যাতে গাড়ি চালাতে কোনরকম সমস্যা হয়।

পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স পাবার ক্ষেত্রে মোটরযানের ওজনের ওপর ভিত্তি করে বয়সের সীমা আছে।

  • ২৫০০ কেজি’র নিচে হলে আবেদনকারীর বয়স কমপক্ষে ২০ বছর হতে হবে।
  • ২৫০০ থেকে ৬৫০০ কেজি হলে আবেদনকারীর বয়স কমপক্ষে ২৩ বছর হতে হবে।
  • মোটরযানের ওজন ৬৫০০ কেজির বেশি হলে আবেদনকারীর বয়স কমপক্ষে ২৬ বছর হতে হবে।

আবেদন  করার প্রক্রিয়া:

  • প্রাথমিক অবস্থায় বিআরটিএ কার্যালয় বা এর ওয়েবসাইট থেকে আবেদনপত্র ও মেডিক্যাল-সার্টিফিকেট ফরম ডাউনলোড করে নিতে হবে।
  • আবেদনপত্রটি প্রার্থীকে নিজ হাতে পূরণ করতে হবে এবং মেডিকেল সার্টিফিকেট ফরমটিও একজন রেজিস্ট্যার্ড চিকিৎসক দ্বারা পূরণ করতে হবে।
  • আবেদনপত্রের সাথে ৩ কপি স্ট্যাম্প সাইজের ও ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের কপি ছবি জমা দিতে হবে।
  • আবেদনপত্রটি বি.আর.টি.এর অফিসে জমা দিতে হবে।
  • ড্রাইভিং লাইসেন্সের ফি নির্ধারিত পোস্ট অফিসে জমা দিতে হবে।
জানতে চাই  New Voter - নতুন করে ভোটার তালিকায় কিভাবে নাম নিবন্ধন করবেন?

 শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের আবেদন ফর্ম ডাউনলোড করুন

মেডিক্যাল-সার্টিফিকেট ফরম ফর্ম ডাউনলোড করুন

ড্রাইভিং লাইসেন্সের আবেদন ফর্ম ডাউনলোড করুন

আবেদনপত্র পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে কর্তৃপক্ষ এর যথার্থতা বিবেচনা করে সাধারণভাবে শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স (driving license) দিয়ে থাকে। শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের মেয়াদ থাকবে তিন মাস।

কর্তৃপক্ষের দেওয়া নির্ধারিত সময় অনুযায়ী ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য লিখিত, মৌখিক ও ব্যবহারিক(ফিল্ড) পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে হবে। পরীক্ষায় ট্রাফিক-আইন, ট্রাফিক-সংকেত ইত্যাদি সম্পর্কিত নানা বিষয়ে কিছু প্রশ্ন থাকবে। ব্যবহারিক বা ফিল্ড টেস্টে পরীক্ষার্থীকে গাড়ী চালাতে হবে। পরীক্ষকের নির্দেশ মত তখন তাকে সামনে-পেছনে, ডানে-বাঁয়ে গাড়ি চালিয়ে তার ড্রাইভিং দক্ষতা প্রমান করতে হবে। এভাবে ধাপ তিনটি সম্পন্ন করার পরে নির্দিষ্ট সময়ে গাড়ি চালানোর লাইসেন্স পাওয়া যাবে।

হালকা মোটরযানের লাইসেন্স পাওয়ার তিন বছর পর ভারী যানবাহনের ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন করা যায়। ট্রাক, লরি বা বাসের মতো ভারী যানের লাইসেন্স পেতে হলে অবশ্যই আগে হালকা মোটরযানের লাইসেন্স থাকতে হবে।

ড্রাইভিং লাইসেন্সের নির্ধারিত ফি (driving license fees):

বিআরটিএ নির্ধারিত পোস্ট অফিসে ড্রাইভিং লাইসেন্সের নির্দিষ্ট ফি জমা দিতে হবে।

  • শুধুমাত্র মোটরসাইকেলের জন্য শিক্ষানবিশ ফি ২৩০ টাকা।
  • গাড়ির ক্ষেত্রে শিক্ষানবিশ ফি ৩৪৫ টাকা।
  • এবং একসাথে দু’টির শিক্ষানবিশ ফি (গাড়ি ও মোটরসাইকেল) ৫১৮ টাকা জমা দিতে হবে।
  • শিক্ষানবিশ লাইসেন্সের মেয়াদ থাকবে ৩ মাস। তারপরে প্রয়োজনে এটি আবার নবায়ন করা যাবে। তার জন্য নির্ধারিত ফি দিতে ৮৭ টাকা।
জানতে চাই  International driving license - আন্তর্জাতিক ড্রাইভিং লাইসেন্স কিভাবে সংগ্রহ করবেন?

শিক্ষানবিস থেকে পূর্ণমেয়াদে দুই রকমের ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে। একটি হচ্ছে অপেশাদার এবং অন্যটি পেশাদার।

  • অপেশাদার লাইসেন্সের নির্ধারিত ফি শুধু প্রাইভেটকারের জন্য ২ হাজার ৩০০ টাকা এবং হালকা যান-বাহন ও মোটর-সাইকেলের জন্য নির্ধারিত ফি দুই হাজার ৪০০ টাকা।
  • পেশাদার লাইসেন্সের নির্ধারিত ফি ১ হাজার ৪৩৮ টাকা।

লাইসেন্স নবায়ন (driving license ) কিভাবে করবেন ও ফী কত?

বিআরটিএ কর্তৃক লাইসেন্সের একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকে। মেয়াদান্তে অবশ্যই নির্ধারিত পরিমাণ ফি জমাপূর্বক লাইসেন্স নবায়ন করতে হবে। অপেশাদার-লাইসেন্স ১০ বছর এবং পেশাদার-লাইসেন্স ৫ বছর পর পর নবায়ন করাতে হয়। লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য ফর্মের সঙ্গে স্ট্যাম্প-সাইজের ২ কপি রঙিন ছবি, পাসপোর্ট-সাইজের ১ কপি রঙিন ছবি, লাইসেন্সের ২টি ফটোকপি ও লাইসেন্সের লেমিনেটিং কপি জমা দিতে হবে।

অপেশাদার লাইসেন্সের নবায়নের জন্য নির্ধারিত ফী পরিশোধ করতে হবে ২ হাজার ৩০০ টাকা এবং এর মেয়াদ থাকবে ১০ বছর। আর পেশাদার লাইসেন্স (driving license) নবায়নের জন্য নির্ধারিত ফী পরিশোধ করতে হবে ১ হাজার ৪৩৮ টাকা এবং মেয়াদ থাকবে পাঁচ বছর পর্যন্ত।  মেয়াদ উত্তীর্ণ হবার পর লাইসেন্স নবায়নের সময় বিলম্ব ফি বাবদ প্রতি ১ বছরের জন্য নির্ধারিত ফী ১০০ টাকা জরিমানা প্রদান করতে হবে।

আন্তর্জাতিক ড্রাইভিং লাইসেন্স(International driving license) কিভাবে,  কোথা থেকে ফর্ম সংগ্রহ করবেন এবং কত ফীস দিতে হবে তা জেনে নিন বিস্তারিতভাবে।