1. Home
  2. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  3. ডোমেইন নাম নির্বাচন করার সময় যেসব বিষয় বিবেচনা করবেন

ডোমেইন নাম নির্বাচন করার সময় যেসব বিষয় বিবেচনা করবেন

একটি ওয়েবসাইট তৈরির জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ডোমেইন নাম নির্বাচন করতে হবে। এই ডোমেইন (domain) নেম আপনার ব্যবসা বা ওয়েবসাইট এর প্রতিনিতিত্ত্ব করবে। অর্থাৎ, আপনি এই ডোমেইনটির মাধ্যমেই সবাইকে আপনার ব্যবসা বা ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানাবেন। ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে এই ডোমেইন বা ঠিকানাটাই হচ্ছে তার নাম। ডোমেইন নেম সম্পূর্ণ ইউনিক অর্থাৎ একটি ডোমেইন পৃথিবীতে শুধুমাত্র একটিই হবে। উদাহরন হিসেবে ফোন নাম্বার চিন্তা করতে পারেন। যেমন- একটি ফোন নম্বরের সাথে আরেকটি ফোন নম্বরের হুবহু মিল নেই।

ডোমেইন নেম
ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন

একটি ওয়েব অ্যাড্রেসের বেশ কয়েকটি অংশ আছে। যেমন- https://www.jantechai.com একটি ওয়েবসাইট অ্যাড্রেস। এখানে ‘https://’ অংশটি প্রোটোকল, www. অংশটি Hostname, এবং jantechai অংশটি ওয়েবসাইটের নাম অর্থাৎ ডোমেইন নেম এবং সবশেষে .com অংশটুকু হচ্ছে এক্সটেনশন।

অর্থাৎ একটি ওয়েবসাইট অ্যাড্রেসের গঠন হবে-

প্রোটোকল://ওয়েব.ডোমেইন.এক্সটেনশন

Domain নেম এ সাধারনভাবে ৩টি থেকে সর্বোচ্চ ৬৩টি অক্ষর ব্যবহার করা যাবে। ডোমেইন এ শুধুমাত্র ইংরেজি অক্ষর, 0 থেকে 9 পর্যন্ত সংখ্যা এবং ড্যাশ “-” ব্যবহার করা যাবে।

ডোমেইন নাম নির্বাচনে যেসব বিষয় বিবেচনা করবেন

একটি সুন্দর বা যথাযথ ডোমেইন খুঁজে বের করা, একটি ব্যবসার নাম নির্ধারণ করার মতই কঠিন একটি কাজ। এটা করতে অনেক চিন্তাভাবনার পাশাপাশি আরও অনেক বিষয় বিবেচনায় রাখতে হয়। যেহেতু ডোমেন নামটি ওয়েবে আপনার বা আপনার ব্যবসার পরিচয় বহন করবে, তাই অবশ্যই এমন একটি নাম নির্বাচন করতে হবে, যা শুধুমাত্র আপনার ব্যবসার পরিচয়ই বহন করবে না, সাথে সাথে সেটি যেন অন্যরা সহজে খুঁজে পায় এবং আপনি যেন নামটি সব জায়গায় ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন। একটি সুন্দর ও যথাযথ ডোমেইন খুঁজে বের করতে যে বিষয়গুলো অবশ্যই বিবেচনা করতে হবে-

নামটি যেন সহজে বুঝা বা লেখা যায়

ডোমেইন নাম অবশ্যই এমন হতে হবে, যা সহজে বুঝা যাবে আবার লিখতে বা টাইপ করতেও অনেক সহজ হবে। যদি আপনি কোন অপ্রচলিত বা কম ব্যবহার হয় এমন শব্দ ব্যবহার করেন, যেমন- you এর স্থানে u বা express এর স্থানে xpress ইত্যাদি, তাহলে অনেক ক্ষেত্রেই ওই শব্দটি বুঝা এবং লেখার সময় ভুল হবার সম্ভাবনা থাকে। এক্ষেত্রে আপনাকে খুঁজে বের করা তুলনামূলকভাবে একটু কঠিন হয়ে যাবে।

নামটি ছোট রাখার চেষ্টা করুন

ডোমেইন নাম যদি বড় বা জটিল ধরনের হয়, তাহলে আপনার ভিসিটররা নামটি ভুলভাবে উচ্চারন করতে বা লিখতে পারে, এতে আপনার ভিসিটর হারানোর ঝুঁকি বেড়ে যাবে। তাই, অবশ্যই চেষ্টা করবেন নামটি ছোট এবং সরল ধরনের রাখতে।

নামের মধ্যে কিওয়ার্ড রাখুন

যে শব্দ বা কিওয়ার্ড‘স আপনার ব্যবসা বর্ণনা করে অথবা আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কিত সার্চে বেশি ব্যবহৃত হয়, তা ডোমেইনে যুক্ত করলে সেটা সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েবসাইট র্যসঙ্ক করতে সাহায্য করতে পারে আবার ভিসিটররাও আপনার ওয়েবসাইটে বেশি আগ্রহী হতে পারে। যেমন- dhakacatering.com: ডোমেইনটি দেখেই আন্দাজ করা যাচ্ছে, প্রতিষ্ঠানটির ব্যবসার ধরন। আবার এ ধরনের নাম ভিসিটরের মনেও একটা পসিটিভ ধারনা সৃষ্টি করবে।

এমন শব্দ বা কিওয়ার্ড’স ডোমেইনে যুক্ত করুন, যা আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস খোঁজার জন্য সার্চ ইঞ্জিনে বেশি ব্যবহৃত হয়।

নির্দিষ্ট কোন এলাকা বা শহর টার্গেট করতে পারেন

নির্দিষ্ট এলাকা বা শহরে ব্যবসার ক্ষেত্রে, ওই এলাকা বা শহরের নাম ডোমেইনে যুক্ত করলে লোকাল মানুষের জন্য তা খুঁজে বের করা বা মনে রাখা অনেক সহজ হয়। যেমন- dhakashop.com

সংখ্যা বা হাইফেন ব্যবহার করবেন না

সংখ্যা বা হাইফেন অনেক সময় বিভ্রান্তি সৃষ্টি হতে পারে। ডোমেন এ ড্যাশ ব্যবহার করলে তা dash হবে নাকি (-) হবে, তা নিয়ে সংশয় থেকেই যায় আবার অনেকেই ড্যাশ লিখতে বা টাইপ করতে ভুলে যেতে পারেন। এরকম ক্ষেত্রে আপনি কিছু কাঙ্ক্ষিত ভিসিটর হারাবেন।

উদাহরনস্বরূপ বলা যায় প্রথম আলো’র ডোমেইন নেম অ্যাড্রেস পরিবর্তনের বিষয়টা। তারা ড্যাশ সমস্যা সমাধানের জন্য পূর্বে ব্যবহৃত ওয়েব অ্যাড্রেস prothom-alo.com পরিবর্তন করে বর্তমানে prothomalo.com ব্যবহার করছে। একইভাবে, সংখ্যার ক্ষেত্রে ডোমেন এ যদি সিক্স (6) ব্যবহার করা হয়, তাহলে টাইপ করার সময়, সেটা six হবে নাকি 6 হবে, তা নিতে সংশয় হওয়া স্বাভাবিক। যেমন- যদি বলি সুপারসিক্স ডট কম, এটা supersix.com ও হতে পারে আবার super6.com ও হতে পারে। তারপরেও যদি এমন নাম নির্বাচনের প্রয়োজন হয়, সেক্ষেত্রে, দুইরকম ডোমেন নেম নিয়ে রাখাটাই নিরাপদ।

সহজে মনে রাখার মত

ওয়েবে লক্ষ domain আছে, তাই আপনার ডোমেইন নেম অবশ্যই আকর্ষণীয় এবং মনে রাখার মত হতে হবে। নামটি পছন্দ করার পরে বন্ধু-বান্ধব এবং পরিচিতজনদের তা শেয়ার করতে পারেন। এতে নামটি কতটা অর্থবোধক বা আকর্ষণীয়, সেই সম্পর্কে একটা ধারনা পাবেন।

বাংলা শব্দ ব্যবহার করতে পারেন

ভাল ইংরেজি নাম খুঁজে পাওয়া এখন প্রায় অসম্ভব একটি কাজ। সেক্ষেত্রে আপনি সুন্দর বাংলা অর্থবোধক শব্দ ব্যবহার করতে পারেন। বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলোর অনেকেই বাংলা শব্দ ব্যবহার করছে। যেমন- bikroy.com, ajkerdeal.com, priyoshop.com ইত্যাদি ইত্যাদি।

আইনগত বিষয়গুলো নিয়ে রিসার্চ করুন

আপনার পছন্দকৃত নামটি অন্য কারও ট্রেডমার্ক বা কপিরাইট করা আছে কিনা অথবা অন্য কোন কোম্পানি ব্যবহার করছে কিনা, তা ভালভাবে যাচাই করে নিতে হবে। এটা আপনার জন্য ভবিষ্যতে অনেক বড় লিগ্যাল ইস্যু হতে পারে এবং অনেক ঝামেলা পোহাতে হতে পারে।

সঠিক ডোমেইন এক্সটেনসনটি নির্বাচন করুন

Domain বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যেমন-

TLD বা Top Level Domain

.com, .org, .net, .info, .biz, .me ইত্যাদি টপ লেভেল বা সর্বোচ্চ লেভেলের domain।
.com : ডট কম সাধারনভাবে ব্যবসা, কোম্পানি বা কমিউনিটি ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহার করা হয়।
.info : ডট ইনফো সাধারনভাবে তথ্যমূলক ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত হয়।
.net : ডট নেট ইন্টারনেট বা ওয়েব সম্পর্কিত কোন ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত হয়।
.org : ডট অরগ অ-বাণিজ্যিক বা অলাভজনক প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে ব্যবহার হয়।
.biz : ডট বীজ সাধারনত ব্যবসা বা বাণিজ্যিক উদ্দেস্যে ব্যবহৃত হয়।
.me : ডট মি ব্যক্তিগত ব্লগ, বায়োডাটা বা ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট তৈরিতে ব্যবহৃত হয়।

gTLD বা Generic Top Level Domain

টপ লেভেল ডোমেইনসমূহের যেগুলো কোন দেশের সাথে সংশ্লিষ্ট নয়, তাদেরকে gTLD বা জেনেরিক টপ লেভেল ডোমেন বলে। যেমন- .com, .org, .net, .info ইত্যাদি জেনেরিক টপ লেভেল ডোমেন। অপরদিকে .in বা .pk Generic Top Level Domain নয়।

SLD বা Sub Level Domain

Domain Name এর পূর্বে ডট এবং তার পূর্বে কিছু থাকলে তাকে Sub Level Domain বলে। যেমন- blog.blogspot.com বা blog.wordpress.com। এখানে blog হল সাব লেভেল ডোমেন (Sub Level Domain)। একটি ডোমেইনের এক বা একাধিক সাব ডোমেন থাকতে পারে।

ccTLD বা Country Code Top Level Domain

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের বা অঞ্চলের বিভিন্ন ডোমেইন এক্সটেনশন আছে, এগুলোই Country Code Top Level Domain। যেমন- .bd (বাংলাদেশ), .pk (পাকিস্তান), .us (আমেরিকা), .uk (ইংল্যান্ড), .in (ভারত) ইত্যাদি।

ব্যবসায়িক কাজে বা ব্র্যান্ডিং এর বিবেচনায় ডট কম (dot com) ডোমেইনের কোন বিকল্প নেই। যদি আপনার পছন্দের ডোমেইনটি ডট কম এ পাওয়া না যায়, কেবলমাত্র তখনি অন্য এক্সটেনশন বিবেচনায় নিতে পারেন।

ব্র্যান্ডিং

ব্র্যান্ডিং এর জন্য বা একই ধরনের নাম যেন অন্য কেও ব্যবহার করতে না পারে, সেজন্য নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আপনার ডোমেইনটির ভিন্ন এক্সটেনশন, কাছাকাছি বা ভুল বানান বা একই রকম উচ্চারন হয় এমন ডোমেন কিনে রাখতে পারেন। এটা আপনার প্রতিদ্বন্দ্বীদের একই ধরনের ডোমেইন কিনতে বা সাইট তৈরিতে যেমন বাধা দিবে, আবার আপনি এমন ভিসিটরও পাবেন যারা সার্চ করার সময় ভুল টাইপ করবে।

দ্রুত ক্রয় করুন

যেহেতু ডোমেইন দ্রুত বিক্রি হয়ে যায়, এবং কিনতে খুব বেশি খরচও করতে হয়না। তাই, আপনার পছন্দের নামটি যত তারাতারি ক্রয় করবেন ততই নিরাপদ। কারন- একবার কেও ডোমেইনটি কিনে ফেললে আপনার জন্য সেটি সংগ্রহ করা অনেক কঠিন হয়ে যাবে।

লেখাটি কি আপনার জন্য সাহায্যকারী ছিল?

error: লেখার সত্ত্ব সংরক্ষিত !!