ওজন কমানোর উপায় হিসেবে প্রথমেই আমাদের অতিরিক্ত মেদ বা চর্বি কমাতে হবে। অতিরিক্ত মেদ বা চর্বি আপনাকে শুধু বিব্রতই করবেনা, এটা আপনার জন্য ক্ষতিকরও বটে। পূর্ণবয়স্ক একজন পুরুষের জন্য ৩৯.৫ ইঞ্চি ও পূর্ণ বয়স্ক একজন মহিলার জন্য ৩৫.৫ ইঞ্চির বেশি পেটের সাইজ থাকলে হার্টের রোগ ও ডায়াবেটিক হতে পারে। ওজন কমানোর সহজ উপায় সম্বন্ধে জানুন বিস্তারিতভাবে।

ওজন কমানোর উপায়

গরম পানিতে লেবু
গরম পানি ও লেবু দেহের বাড়তি মেদ ও চর্বি কমাতে অনেক সাহায্য করে এবং এটি ওজন কমানোর সহজ উপায় সমূহের একটি। এক মগ গরম পানিতে ১ ফালি লেবু ও ১ চিমটি লবণ মিশিয়ে নিন। চিকন হওয়ার উপায় হিসেবে চিনি ছাড়া লেবু পানি প্রতিদিন ২বার সকালে ঘুম থেকে উঠে আর রাতে ঘুমাতে যাবার আগে পান করবেন। বাড়তি মেদ কমিয়ে আপনাকে চিকন হতে সাহায্য করবে।

লাল চালের ভাত খেতে পারেন
চিকন হওয়ার জন্য সাদা ভাতের পরিবর্তে লাল চালের ভাত খেতে পারেন। লাল চালে আঁশ যুক্ত ও শর্করার পরিমাণ কম থাকে। এছাড়া ওজন কমানোর জন্য ব্রাউন রুটি, সালাত খেতে পারেন। এতে দেহে ক্যালোরি কম ঢুকবে ফলে শরীরের জমা চর্বি খরচ হয়ে চিকন হতে সাহায্য করবে।

মিষ্টি বা চিনি দিয়ে তৈরি খাবার খাবেন না
চিকন হবার জন্য মিষ্টি বা চিনি দিয়ে তৈরি খাবার, পাকা কলা,আলু খাবেন না। কেননা এ জাতীয় খাবারগুলোর শর্করা আপনার শরীরে অতিরিক্ত ক্যালোরি যোগান দিয়ে দেহের বিভিন্ন অংশে চর্বি জমিয়ে ফেলে। তাই ওজন কমানোর জন্য এগুলো খাওয়ার পরিবর্তে প্রতিদিন ১টি টক জাতীয় ফল খাবেন।

জানতে চাই  ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার

প্রতিদিন রসুন
চিকন হওয়ার জন্য প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ১কোয়া রসুন চিবিয়ে খাবেন। এরপর গরম পানিতে চিনি ছাড়া লেবু রস মিশিয়ে পান করবেন লেবুর রস। লেবু পানি আপনার পেটের চর্বি কমিয়ে চিকন হওয়ার সহজ উপায় হিসেবে দ্বিগুণ দ্রুতগতিতে কাজ করবে। সাথে কাঁচা রসুন খাওয়ার উপকার পাবেন।

প্রচুর ফল ও সবজি রাখুন প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায়
প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় চিকন হওয়ার জন্য প্রচুর ফল ও সবজি রাখুন। সকাল ও সন্ধ্যায় নিয়ম করে ফল ও সবজি খাবার চেষ্টা করবেন। এতে আপনার শরীর থাকবে সজিব সাথে পাবে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, মিনারেল ও ভিটামিন। ওজন কমানোর সুবিধাও পাবেন।

রান্নায় উপকারী মসলা ব্যবহার
আপনার রান্নায় ব্যবহার করবেন জিরা ধনিয়া, হলুদ, রসুন, মরিচ, আদা, পেয়াজ ও গোলমরিচ। এসেন্স এর মধ্যে ভ্যানিলা এসেন্স, স্ট্রবেরী এসেন্স খেতে পারবেন। কারণ এসব মসলার রয়েছে অনেক ভেষজ গুনাগুন ও স্বল্প ক্যালরিযুক্ত যা আপনাকে রক্তে শর্করার পরিমাণ কমিয়ে মোটা স্বাস্থ্যের ওজন কমিয়ে চিকন হতে সাহায্য করবে।

আমিষের অভাব পূরণের জন্যে ডাল
খাদ্য তালিকায় যতটা সম্ভব অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত মাংস সাথে অন্যান্য আমিষ জাতীয় খাবার পরিহার করবেন। তবে আমিষের অভাব পূরণের জন্যে ডাল খেতে পারেন। ২-৩ ধরনের ডাল এক সঙ্গে রান্না করে খেলে মাছ, মাংস, ডিমের অভাব পূরণ করা যায়। এর ফলে আপনার শরীরের অযাচিত ওজন কমিয়ে চিকন হতে পারবেন।

কমপক্ষে ৩ লিটার পানি পান করুন
যে কোনো সুস্থ মানুষেরই দিনে কমপক্ষে ৩ লিটার পানি পান করা প্রয়োজন। প্রতিদিন প্রচুর পানি পান করার ফলে দেহের মেটাবলিজম বাড়ায় ও রক্তের ক্ষতিকর উপাদান প্রস্রাবের সঙ্গে বের হয়ে যায়। চিকন হওয়ার জন্য পেছনে উচ্চ মেটাবলিজম দায়ী তেমনি মোটা হওয়ার জন্য ধীর গতির মেটাবলিজম দায়ী। যারা ওজন কমাতে আগ্রহী তাদের জন্য প্রয়োজন বেশি বেশি পরিমাণ পানি পান করা।

জানতে চাই  ডেঙ্গুজ্বরের লক্ষণ ও প্রতিকার

নিয়মিত হাঁটতে হবে
দিনে মাত্র ১৫ মিনিট জোরে জোরে হাঁটলে ১৬০ গ্রাম ক্যালোরি খরচ হয়। তাই খুব দ্রুত গতিতে হাঁটা প্রয়োজন। আরাম করে হাঁটলে/জগিং করলে ক্যালোরি খুব কম খরচ হয়।

খাদ্য তালিকা সাজান নতুনভাবে
ওজন কমানোর জন্য নুতন খাদ্য তালিকা তৈরি করুন। মিষ্টি, গুর, মধুযুক্ত খাবার, মিষ্টি জাতীয় খাবার বাদ দিতে হবে। শর্করাবহুল খাবার গুলো (চাল, আটা দিয়ে তৈরি খাবার, মিষ্টি ফল ইত্যাদি) হিসেব করে খেতে হবে। ওজন কমাবার উপায় হিসেব আঁশযুক্ত খাবার গুলো (ডাল, শাক, সবজি, টক ফল ইত্যাদি)বেশি করে খেতে হবে। স্যাচুরেটেড ফ্যাট (ঘি, মাখন, চর্বি, ডালডা, মাংস ইত্যাদি) কম খাওয়া, আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট (উদ্ভিদ তৈল-সয়াবিন তৈল, সরিষার তৈল) এবং সব ধরনের মাছ খেতে হবে। তবে ওজন কমাবার উপায় হিসেব মিষ্টিজাতীয় পানীয় একেবারে খাবেন না, এর পরিবর্তে চা অথবা কফি খাবেন।

নির্দিষ্ট সময়ে ও নির্দিষ্ট পরিমানে খাবার খান
ওজন কমানোর জন্য নির্দিষ্ট সময়ে খাবার খেতে হবে। কোন বেলায় খাবার খাওয়া বাদ দেওয়া চলবে না। আজ কম খাব,কাল বেশি খাবার খাব এমন করা ঠিক না। ওজন কমানোর জন্য আপনার শরীরে কত গ্রাম ক্যালোরি প্রয়োজন তা ঠিক করে নিবেন এবং ক্যালোরি বহুল খাবার নির্দিষ্ট পরিমানেই খেতে হবে।

সোডা পান করবেন না
প্রতিদিন একটি বা দুইটা সোডা পান দেহের অতিরিক্ত ওজন হওয়ার সম্ভাবনাকে ৩৩ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়। এমনকি ডায়েট সোডা পান করাও মোটেও উচিত না। চিকন হওয়ার জন্য এসব ত্যাগ করা উচিত।

জানতে চাই  Child blindness - শিশু অন্ধত্ব, কারন ও প্রতিরোধের উপায়

ফলের শরবত পান করবেন না
সকল ফলের শরবতেই প্রচুর পরিমানে চিনি থাকে এবং সেগুলো কিছুটা চটচটে টাইপের হয় যা কিনা তৈরী করা হয় অনেক বেশী পরিমান ফ্রুক্টোজ কর্ন সিরাপ দিয়ে। যা শরীরের ওজন কমানোতে বাধা দিয়ে চিকন থাকার উপাদানগুলোকে নষ্ট করে দেয়।